NarayanganjToday

শিরোনাম

নারায়ণগঞ্জের তিন এলাকার লকডাউন তিন দিনের মাথায় প্রত্যাহার!


নারায়ণগঞ্জের তিন এলাকার লকডাউন তিন দিনের মাথায় প্রত্যাহার!

‘রেড জোন’ নারায়ণগঞ্জের অধিক ঝুঁকিপূর্ণ তিন এলাকা ‘লকডাউনের’ তিন দিনের মাথায় তা আবার তুলে নেওয়া হয়েছে। বুধবার (১০ জুন) থেকে এই লকডাউন তুলে নেয় প্রশাসন।

এর আগে ৭ জুন শহরের আমলাপাড়া, জামতলা এবং সদর উপজেলার ফতুল্লার ভূইগড়ের রূপায়ন টাউনকে অধিকঝুঁকিপূর্ণ উল্লেখ করে জেলা প্রশাসন থেকে তা লকডাউন ঘোষণা করা হয়। ওই সময় বলা হয়েছিল, ১৫ দিন থেকে ২১ দিন পর্যন্ত এই লকডাউনের মেয়াদ থাকতে পারে।

এছাড়াও ওই সময় জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ থেকে জানানো হয়েছিলো, লকডাউন করে দেওয়া ওই তিনটি এলাকাকে ‘রেড জোন’ হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে। তাদের টার্গেট এই তিনটি এলাকাকে ‘ইয়োলো জোনে’ নামিয়ে আনা।

তবে, সেসময় তিন এলাকা লকডাউন করার পর এটি ‘পরীক্ষামূলক’ উল্লেখ না করলেও এখন প্রশাসন থেকে বলা হচ্ছে, পরীক্ষামূলকভাবে ওই তিনটি এলাকা তারা লকডাউন করেছিলো। তবে, এই লকডাউন ঘোষণা আবার প্রত্যাহার, এ নিয়ে জনমনে বেশ কৌতুহল সৃষ্টি করেছে। তারা ধারণা করছেন, করোনা মোকাবেলায় প্রশাসনের কী করণীয়, তা ঠিক নির্ধারিত করতে পারছে না স্থানীয় প্রশাসন। যার কারণে লকডাউনের তিন দিনের মাথায় তা আবার প্রত্যাহার করা হয়েছে।

এদিকে নারায়ণগঞ্জ জেলা করোনা প্রতিরোধ কমিটির সদস্য সচিব ও জেলা সিভিল সার্জন ডা. মুহাম্মদ ইমতিয়াজ প্রথমে এ ব্যাপারে বক্তব্য দিতে রাজি না হলেও পরবর্তীতে তিনি নারায়ণগঞ্জ টুডে’কে বলেন, এসব এলাকাগুলোর অবস্থা এখন অনেকটাই ভালো। এখানে আক্রান্তের সংখ্যা কমতে শুরু করেছে। রূপগঞ্জে বাড়ছে। সেদিকটাতে আমরা এখন নজর দেব। এ নিয়ে আজ আমাদের একটা মিটিং আছে। সেখানে রূপগঞ্জকে রোড জোন ঘোষণা করা হতে পারে। এছাড়া পরীক্ষামূলক তিন এলাকায় লকডাউন দিয়ে আমরা সফল হয়েছি।

অন্যদিকে নারায়ণগঞ্জ জেলা পুলিশ সুপার (এসপি) মোহাম্মদ জায়েদুল আলম নারায়ণগঞ্জ টুডে’কে বলেন, আসলে ওই তিনটি এলাকাকে আমরা পরীক্ষামূলক লকডাউন করেছিলাম। দেখতে চেয়েছিলাম লকডাউনে কি কি সমস্যা হয় আর কি উপকার আসে। সেগুলো আমরা লিস্ট করেছি। এখন পরবর্তী ব্যবস্থা নেওয়া হবে। আমরা সিভিল সার্জন সাহেবকে দায়িত্ব দিয়েছি, তিনি রেড, ইয়লো, গ্রিন জোন চিহ্নিত করবেন। সে মোতাবেক আমরা সেগুলোকে লকডাউন করবো।

৭ জুন লকডাউন ঘোষণার পর বলা হয়েছিল এটির মেয়াদ ১৫ থেকে ২১ দিন থাকবে, তখন এটি পরীক্ষামূলক নয় এবং অধিকঝুঁকিপূর্ণ এলাকা হিসেবেই এই তিনটি এলাকাকে চিহ্নিত করা হয়েছিল, তাহলে এখন আপনি বলছেন পরীক্ষামূলক, বিষয়টি স্পষ্ট নয়, জানতে চাইলে তিনি বলেন, অধিক ঝুঁকিপূর্ণ নয়। যেমন রূপায়ন টাউনে একজনও করোনা রোগী নেই। তাছাড়া এই লকডাউন সরকারি ভাবে সিদ্ধান্ত নিয়ে করা হয়নি। প্রশাসন থেকে পরীক্ষামূলক করা হয়েছিল।

১০ জুন, ২০২০/এসপি/এনটি

উপরে