NarayanganjToday

শিরোনাম

বকেয়া বেতন দাবিতে ফকিরার শ্রমিকদের বিক্ষোভ, ভাঙচুর


বকেয়া বেতন দাবিতে ফকিরার শ্রমিকদের বিক্ষোভ, ভাঙচুর

নারায়ণগঞ্জে বকেয়া বেতন বোনাসের দাবিতে বিক্ষোভসহ সরকারি কর্মকর্তাদের ব্যক্তিগত গাড়ি ভাংচুর করেছে একটি রপ্তানিমুখী পোশাক কারখানার শ্রমিকরা।

মঙ্গলবার দুপুরে সদর উপজেলার ফতুল্লা থানার কায়েমপুর এলাকায় ফকির নীটওয়্যার লিমিটেডের সহস্রাধিক শ্রমিক দুই ঘন্টাব্যাপী এই বিক্ষোভ করে। বিক্ষুব্ধ শ্রমিকরা কায়েমপুর-হাজীগঞ্জ সড়ক অবরোধ করে ইট পাটকেল নিক্ষেপ করে গার্মেন্টস কারখানা ভবন ভাংচুর করে।

এসময় কারখানাটিতে কয়েকজন শ্রমিক করোনা আক্রান্ত হওয়ার খবর পেয়ে জেলা সিভিল সার্জন ডা. মোহাম্মদ ইমতিয়াজ ও জেলা করোনা ফোকাল কর্মকর্তা ডা. জাহিদুল ইসলাম সেখানে পরিদর্শনে গেলে তাদের গাড়িও ভাংচুর করে শ্রমিকরা। এসময় পাঁচজন শ্রমিক আহত হয়েছেন বলে জানা গেছে।

পরে পুলিশ ও সেনাবাহিনীসহ সদর উপজেলা নির্বাহি কর্মকর্তা ঘটনাস্থলে গিয়ে শ্রমিকদের বুঝিয়ে শান্ত করলে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়।

শ্রমিকদের অভিযোগ, গার্মেন্টস কর্তৃপক্ষ তাদের বেতন ও ঈদ বোনাস পুরো পরিশোধ না করে অর্ধেক পরিশোধ করায় তারা বাধ্য হয়ে সড়ক অবরোধ করে আন্দোলনে নেমেছে। মালিকপক্ষের কাছে তারা পুরোপুরিভাবে বেতন ও ঈদের বোনান দাবি করে।

এ ব্যাপারে নারায়ণগঞ্জের সিভিল সার্জন ডা. মোহাম্মদ ইমতিয়াজ বলেন, ফকির নীট ওয়্যারের বেশ কয়েকজন শ্রমিক করোনা ভাইসারে আক্রান্ত এবং তাদের নমুনা পরীক্ষার রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে বলে আমরা খবর পাই। এ কারণে আমি জেলা করোনা ফোকাল কর্মকর্তা ডা. জাহিদুল ইসলামকে নিয়ে সেখানে যাই। তবে ওই সময় কারখানাটির শ্রমিকরা বেতন বোনাসের দাবিতে আন্দোলন করছিল এটা আমাদের জানা ছিল না। আগে থেকে জানা থাকলে আমরা তখন যেতাম না।

তিনি আরও বলেন, আমরা সেখানে যাওয়ামাত্র শ্রমিকরা আমাদের দুইটি গাড়ি ভাংচুর করে। আমরা এক প্রকার অবরুদ্ধ হয়ে পড়ি। পরে পুলিশের সহায়তায় নিরাপদে নিজ নিজ অফিসে ফিরে আসি।

১৯, ২০২০/এসপি/এনটি

উপরে