NarayanganjToday

শিরোনাম

সদর উপজেলার ৩ শ আনসার ভিডিপিকে ত্রাণ বিতরণ


সদর উপজেলার ৩ শ আনসার ভিডিপিকে ত্রাণ বিতরণ

মানবতার ফেরিওয়ালা হয়ে মানুষের সেবা করে যাচ্ছে নারায়ণগঞ্জ আনসার ভিডিপির সদস্যরা। এ বাহিনীর সদস্যরা নারায়ণগঞ্জে করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের শুরু থেকেই প্রত্যন্ত অঞ্চল ও নগরীতে জনগণকে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে অবস্থান, ঘরে থাকা ও সরকারি বিধি-নিষেধ মেনে চলতে মাইকিং করে চলেছে। হোম কোয়ারান্টাইন নিশ্চিত করতে বিদেশফেরতদের বাড়ীতে লাল পতাকা টাঙানোসহ বিভিন্ন উদ্যোগ বাস্তবায়ক করেছে। শুধু তাই নয়, এবার তারা দুস্থ আনসার ভিডিপির সদস্যদের ঘরে ঘরে ত্রাণ পৌছে দিয়েছেন।

বৃহস্পতিবার (৩০ এপ্রিল) সকাল ৯টা থেকে নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলাধীন ৩’শ দুস্থ ও অসহায় আনসার ভিডিপি সদস্যদের বাড়ীতে বাড়ীতে গিয়ে এ ত্রাণ বিতরণ করা হয়। বাংলাদেশ আনসার ভিডিপির মহা পরিচালকের দেয়া ত্রাণ সামগ্রী নারায়ণগঞ্জ জেলা কমান্ড্যান্ট মো: মকসুদ রসূলের দিকনির্দেশনায় বিতরণ করেন সদর উপজেলা আনসার ভিডিপি অফিসার অজিত কুমার দাস।

নারায়ণগঞ্জ সদর আনসার ভিডিপি কমিটির মাধ্যমে দেয়া এসব ত্রাণসামগ্রীর মধ্যে ছিলো, জনপ্রতি ৫ কেজি চাউল, ২ কেজি আলু, ১ কেজি পিয়াজ, ১ কেজি ডাল, ১ লিটার তৈল, ১টি সাবান ও ১টি মাস্ক।

এ বিষয়ে সদর উপজেলা আনসার ভিডিপি অফিসার অজিত কুমার দাস বলেন, আপনারা জানেন, অনেক আগেই নারায়ণগঞ্জকে করোনার হটস্পট ঘোষণা করা হয়েছে। প্রতিনিয়ত এখানে বাড়ছে করোনা রোগীর সংখ্যা এবং সংক্রমন নিয়ে মৃত্যুও হচ্ছে অনেক। এমন ভয়াবহ পরিস্থিতির মধ্যেও নারায়ণগঞ্জ আনসার ভিডিপি সদস্যরা অত্যান্ত সাহসের সঙ্গে তাদের দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছেন।

তিনি আরও বলেন, এমন পরিস্থিতিতে করোনা ভাইরাসের সংক্রমন ঝুঁকি থাকা সত্বেও যেন জীবনের মায়া ত্যাগ করেই মানুষের জন্য কাজ করে যাচ্ছেন আনসার ভিডিপির সদস্যরা। তিনি বলেন, দেশে যতই সঙ্কটাপূর্ণ সময় আসুক না কেন, আমরা তথা আনসার ভিডিপির সদস্যরা মানুষের পাশে ছিলাম আছি এবং থাকবো। এতে যদি আমাদের প্রাণও দিতে হয়, তাতেও আমরা পরোয়া করি না। কেননা, আমরা মনে করি দেশের জন্য আমরা সবাই যুদ্ধে নেমেছি। আমাদেরকে জয়ী হতে হবেই।

এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন, সদর উপজেলা আনসার ভিডিপির প্রশিক্ষক খাইরুল আলম, কম্পানী কমান্ডার আবুল কালাম আজাদসহ সংশ্লিষ্ট ইউনিয়ন, ওয়ার্ডের দলনেতা-দলনেত্রী।

 

উপরে